ঐক্যফ্রন্ট ছাড়ছেন অলি আহমেদ !

বহু নাটকীয়তার পরে ঐক্যফ্রন্ট ছেড়ে যাচ্ছেন ডিগবাজিতে সিদ্ধহস্ত অলি আহমেদ। নির্বাচনী দরকষাকষিতে মতান্তর হওয়ায়ই অলি এই সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। ঐক্যফ্রন্টের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র এই তথ্য জানিয়েছে। এর মাধ্যমে দিবালোকের মতোই স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে যে, ঐক্যফ্রন্ট আদর্শিক কোন জোট নয় বরং ক্ষমতা ভাগাভাগি নিশ্চিত করতেই এই উদ্ভট জোটের উদ্ভব।
জানা যায়, এক বৈঠকে ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতাদের কাছে অলি আহমেদ তার দল এলডিপি’র প্রার্থীদের জন্য ৫০টি আসন দাবি করেন। তার এসব দাবিকে ‘হাস্যকর’ হিসেবে উড়িয়ে দেন ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতারা। এমনকি তাকে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করতেও ছাড়েননি তারা।

রাগে ক্ষোভে বৈঠকস্থল ত্যাগ করেন অলি। এরপর তিনি যোগাযোগ করেন বিদেশে পলাতক, দণ্ডিত আসামী তারেকের সাথে। ‘তোমার পিতার সাথে আমি রাজনীতি করেছি, আমার ৫০টি আসন চাই’ এমন দাবি করেন তারেকের কাছে। এই কথা শুনে তারেক ক্ষেপে যান। একে তো ঐক্যফ্রন্টের নিয়ন্ত্রণ কামাল-কাদের-মান্না গং এর হাতে চলে গিয়েছে, অন্যদিকে অলি আহমেদের অতীতও তারেকের জন্য সুখকর নয়।

বিএনপি জামায়াত ক্ষমতায় থাকাকালে ব্যাপক দুর্নীতি ও সন্ত্রাসের অভিযোগ এনে বিএনপি ছেড়ে বেরিয়ে যান এই নেতা। তখন খালেদা-তারেক গং এর বিরুদ্ধে সরাসরি প্রচণ্ড কঠোর ভাষায় সমালোচনা করেন তিনি। ‘মা ভালো হলে সন্তান ভালো হতো। মা-ছেলে দু’টোই চরম খারাপ’ তার এ উক্তি আজও সবার মুখে মুখে। বিএনপি জামায়াত সরকারের অনেক গোমরও ফাঁস করে দেন তিনি।

আজ কালের বিবর্তনে, ক্ষমতার লোভে তিনি যখন তারেকের দ্বারস্থ হলেন তখন তারেক তাকে রীতিমতো অপমান করেছেন। অতীতের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে অলিকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ক্ষমতায় এলে তাকে গুলি করে মেরে ফেলার হুমকিও দিয়েছেন তারেক। অলি আহমেদের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্রই জানাচ্ছে এমন সংবাদ।

সবমিলিয়ে অলি আহমেদের এখন ত্রাহি অবস্থা। ক্ষমতার হালুয়া-রুটির বদলে ভাগ্যে তপ্ত বুলেট জুটতে পারে এমনটাই আঁচ করতে পারছেন তিনি। তাই ঐক্যফ্রন্ট ছাড়তে যাচ্ছেন তিনি। ডিগবাজিতে পটু এই রাজনীতিবিদ এখন কোন জোটের দুয়ারে গিয়ে দাঁড়াবেন, সেটিই এখন দেখার ব্যাপার।

শেয়ার করুন:
  • 2.2K
    Shares

You May Also Like