তরুণদের উচ্চ রক্তচাপ বাড়ছে কেন?

একটি সময় উচ্চ রক্তচাপকে কেবল প্রবীণদের রোগ বলা হতো। তবে বর্তমানে তরুণদের মধ্যেও উচ্চ রক্তচাপের প্রবণতা বাড়ছে। এর কারণ কী?

প্রশ্ন : তরুণদের মধ্যে উচ্চ রক্তচাপ লক্ষ্যণীয়ভাবে বাড়ছে। এর কারণ কী?

উত্তর : প্রেশারকে কারণ অনুযায়ী আমরা দুই ভাগে ভাগ করি। এটি হলো প্রাইমারি আর সেকেন্ডারি। প্রাইমারি ব্লাড প্রেশারের কারণগুলো কম বোঝা যায়। প্রায় ৮০ থেকে ৯০ ভাগ ব্লাড প্রেশার এটি।

যাদের বয়স ৩০ এর নিচে, তাদের যদি প্রেশার দেখা দেয়, সাধারণত আমরা ধরে নেব সেকেন্ডারি হাইপারটেনশন। এর কারণ অনুসন্ধান করলে পেয়ে যাব। কারণের মধ্যে সবচেয়ে বড় কারণ হলো কিডনি রোগ। কিডনি রোগের মধ্যে ক্রনিক কিডনি ডিজিজ হতে পারে। একিউট ক্রনিক কিডনি ডিজিজ হতে পারে। অথবা কিডনি যে রক্ত পরিবহন করে রেনাল আর্টারি, এটি যদি সরু হয়ে যায়, তার কারণেও হতে পারে। কিডনির ওপর মোরগের ফুলের মতো একটি গ্রন্থি রয়েছে- এগুলো হলো সেকেন্ডারি উচ্চ রক্তচাপ। আর প্রাইমারি হাইপারটেনশন, যেটির সংখ্যা বেশি, যে মা-বাবার প্রেশার রয়েছে, তাহলেও হতে পারে। আরেকটি কারণ হলো, এটি এখন মহামারি আকারে দেখা দিয়েছে পুরো বিশ্বে। সেটি হলো স্থূলতা। যারা মদ বেশি খায়, তাদেরও একটু সমস্যা হতে পারে। যারা হাঁটাহাঁটি করে না, সেডেন্টারি জীবন যাপন যেটি, এর কারণেও হতে পারে। এটি হলো প্রাইমারি হাইপারটেনশন। আর দেখা গেছে প্রেশার রোগটি যত বয়স বাড়ে, এর ঝুঁকি ততটা বেড়ে যায়। একজন লোকের ২৫ বছর বয়স, ১০০ জনের ক্ষেত্রে আমি যদি দেখি, তাহলে কিন্তু ৫০ জনের উচ্চ রক্তচাপ। আবার যাদের ষাঠের বেশি, তাদের ৬০ ভাগ লোকের প্রেশার উচ্চ থাকে। ৮০ বছর হলে ৮০ ভাগ লোকের থাকবে। যত বয়স বাড়বে, তত ঝুঁকি বাড়বে। সেই ক্ষেত্রে আমি বলব, যাদের উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে, তারা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে না, তারা এই রক্তচাপকে এতটাই অনিয়ন্ত্রিত করে রাখে, তার কিছু জটিলতা কিন্তু পরবর্তীকালে তাদের ভুগতে হয়।

শেয়ার করুন:
  • 12
    Shares

You May Also Like