গ্রামীণ উন্নয়নে বিশ্বব্যাংকের ৫২ কোটি ডলার

দেশের গ্রামীণ সড়ক ও সেতুর উন্নয়ন এবং দুর্যোগ প্রবণ অঞ্চলের যোগাযোগ অবকাঠামোর উন্নয়নে দুটি প্রকল্পে ৫২ কোটি ৫০ লাখ ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক।

বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে সরকারের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) ও বিশ্ব ব্যাংকের মধ্যে দুটি চুক্তি সই হয়। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর চিমিয়াও ফান এবং ইআরডির অতিরিক্ত সচিব মাহমুদা বেগম চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, স্বাক্ষরিত দুই প্রকল্পের মধ্যে ‘গ্রামীণ সেতু নির্মাণ প্রকল্পে’ ৪২ কোটি ৫০ লাখ ডলার দেওয়া হচ্ছে। এ প্রকল্পটির মাধ্যমে ১৯টি উপকূলীয় জেলায় ২৯ হাজার মিটার সেতুর সংস্কার এবং ৬১ জেলায় নতুন করে ২০ হাজার মিটার সেতু নির্মাণ করবে সরকার। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে দেশের ৫৫ লাখ মানুষের কর্মসংস্থানও তৈরি হবে।

দ্বিতীয় ঋণ চুক্তি হয়েছে ‘দ্বিতীয় গ্রামীণ পরিবহন উন্নয়ন প্রকল্পে’ ১০ কোটি ডলারের। এর মাধ্যমে উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে ২০১৭ সালে প্রবল বৃষ্টিপাতে ক্ষতিগ্রস্ত ১ হাজার ৪৩৩ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার করা হবে। এছাড়া ২৬টি জেলার ৬ হাজার কিলোমিটার গ্রামীণ সড়কের রক্ষণাবেক্ষণও এই প্রকল্পের আওতায় করা হবে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে চিমিয়াও ফান বলেন, এই প্রকল্প দুটি বাস্তবায়ন করা হলে দেশের ১০ কোটি মানুষ উপকৃত হবে। গ্রামীণ সেতুগুলো দেশের উন্নয়নের চালিকাশক্তি হিসেবে কাজ করছে। এভাবে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন গ্রামীণ জীবনমান উন্নয়নে ব্যাপক অবদান রাখছে। দুটি প্রকল্পের মাধ্যমেই দেশের গ্রামীণ যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে কাজ করা হবে।

বর্তমান বিনিময় হার অনুযায়ী বাংলাদেশি মুদ্রায় এই ঋণের পরিমাণ প্রায় ৪ হাজার ৪০০ কোটি টাকা। পাঁচ বছরের রেয়াতকালসহ ৩০ বছরে ২ শতাংশ হারে সুদ দিয়ে এ ঋণ পরিশোধ করতে হবে।

শেয়ার করুন:
  • 162
    Shares

You May Also Like