‘আমি আপনাকে একটু ছুঁয়ে দেখতে পারি!’

‘আমি আপনাকে একটু ছুঁয়ে দেখতে পারি!’ বাংলা সাহিত্যের জীবন্ত কিংবদন্তি সমরেশ মজুমদারের উদ্দেশে এ আকুতি আসমা ইসলামের।

সমরেশ কিছু বলার আগেই সঞ্চালক কবি বিশ্বজিৎ চৌধুরী মঞ্চে ডেকে নিলেন তাকে। তখন সমরেশ বললেন, আগে বলো তুমি কী করো?

আসমার জবাব, ‘সাইকোলজিতে পড়ি!’ সমরেশ যোগ করলেন, ‘যারা এটা পড়ে তাদের মাথার…।’ হাসির রোল পড়ে হলজুড়ে। এরপর আসমার সঙ্গে হাত মেলান সমরেশ। বলেন, ‘এত ঠাণ্ডা কেন তোমার হাত!’

আসমা ইসলাম প্রশ্নোত্তর পর্বে চিরকুটে লেখেন, ‘আজকে সামনে বসে সরাসরি আপনার দিকে তাকিয়ে বলতে আসলাম, আপনাকে ভালোবাসি।’

আমি আপনাকে একটু ছুঁয়ে দেখতে পারি! সমরেশকে বললেন আসমা। ছবি: সোহেল সরওয়ারসমরেশ বলেন, ‘তুমি আয়নায় যখন নিজেকে তাকাও তখন নিজেকে ভালোবাসো। এটাও তাই। নিজের ভালো লাগাটা তুমি দেখতে পাচ্ছো। আসলে তুমি নিজেকেই ভালোবাসো।’

শুক্রবার (০৭ ডিসেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু হলে বাতিঘর আয়োজিত আলাপচারিতা অনুষ্ঠানে পাঁচ শতাধিক সমরেশ ভক্ত এসময় মুহুর্মুহু করতালি দিয়ে উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন।

অনুষ্ঠানে শত শত তরুণ-তরুণী দাঁড়িয়ে মন্ত্রমুগ্ধের মতো সোয়া এক ঘণ্টা সমরেশ মজুমদারের কথা শোনেন। এরপর প্রিয় লেখকের অটোগ্রাফের জন্য, সেলফি তোলার জন্য ভিড় করেন তারা। একপর্যায়ে আয়োজকদের হস্তক্ষেপে ভিড় ঠেলে নিয়ে যাওয়া হয় অতিথিকে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী আফরিন জাহান বলেন, ‘অটোগ্রাফ নিতে পারিনি। এটা যতটা দুঃখের, তার চেয়ে হাজার গুণ বেশি সুখের সমরেশ মজুমদারকে নিজের চোখে সামনাসামনি দেখতে পাওয়া। আশাকরি, তিনি আবার চট্টগ্রামে আসবেন।’

শেয়ার করুন:

You May Also Like